Posted in Poetry

Making Love

I want you to hug me once.
I want to smell you for that instance.
I want to touch you for that moment.
I want you to kiss me on that second.

And there will be a memory, worth a Lifetime.
And then we depart for ages from each other.
I would grow grey hairs,
You will be losing your sight.

And I wish you to meet me then,
To recreate the kiss again
and break my cold heart;
To make it warm enough
To sprout a new charm.
And then you'll whisper in my ears,
"Fool, that's how we make love,"
Posted in Poetry

Azrael

It's half past midnight,
The city is not sleeping.
I hear, there's a siren hooting.
And I know another one will be in minute fifteen.

The city is sick, so the world is.
I pray for the people who are gasping
For one last time to breathe.
Doctors just watch them, silently standing.
Bodies are piling up for cremating;
And burial grounds are almost full.
And the political arena is on heat.
And you know, the government has failed its people.

I stay wide awake with no hope left,
In my bed and chills run down my spine;
Each time a dog howls in the alley,
I sense the presence of him.
I know, tonight he'll take away somebody.
I know that he is cold and silent.
I know that he shows no mercy.
I know, he holds God's mandate.

Azrael is walking among us.
Maybe with tears in his eyes,
Maybe he is also stunned to see,
This destruction of humanity.
Or maybe he is just carrying the task;
And it's time for us to pay back.
For what we did in Syria or Iraq;
Or for every cruelty to the women;
Or for razing the trees and fuming the air;
Or for bombing schools of innocent children.

Yet, Every time Azrael spreads his wings
And swings his sword;
I pray to God to forgive the sins
And the deeds we did wrong.
I hope for a better tomorrow;
Though I know our sins are too heavy.
Yet, I ask God to show us mercy;
But I can't promise him better humanity.
Posted in Poetry

নিভৃতবাস

এ কেমন নিভৃতবাস?
আমি গুমরে মরি আমার কক্ষপথে।
আমার ক্লান্ত শরীর টেনে চলে,
একটা কালো ব্যাগকে।

এ কেমন নিভৃতবাস?
রোজ রাতে আঁচড় কাটি আমার বালিশে।
আমি শূন্যমনে শুনতে থাকি
স্তাবকের নালিশ।

এ কেমন নিভৃতবাস?
আমি হাফিয়ে উঠি একলা ফ্ল্যাটে।
প্রতিদিন মায়ের ফোন হয় আরও সংক্ষিপ্ত;
আর প্রেমিকেরটা ক্রমশ অদৃশ্য।

এ নিভৃতবাস বড়ো বিসদৃশ।
আমি সুস্থ অথচ অস্পৃশ্য।
আর জিজ্ঞাসে না কেউ আমার কথা।
ভালোবেসে বলে না কেউ “কেমন আছো?”

অথচ একবিংশের পৃথিবী থাকে আপন মনে
প্রতিটি মানুষ নিজের মতো নিভৃতে, আপন কক্ষপথে।
নিজের মুঠোফোনে বন্দী এক অলীক জগতে,
রাত জাগে তারা অচেনা মানুষের চ্যাটবক্সে।

একবিংশের পৃথিবীতে প্রেমিকরা আসে না করবী নিয়ে,
একবিংশের পৃথিবীতে স্বীকৃতি আসে মোটা মাইনেতে।
একবিংশের পৃথিবীতে আছে শুধু কাঠিন্য,
একবিংশের পৃথিবী বড়ো ধূসর, বড়ো নিষ্ঠুর, বড় ব্যর্থ।

দিন ফুরিয়ে যায় ক্রমশ;
ফুরিয়ে আসে কাজ, সিনেমা, গল্পের বই।
মাথার মাঝে কথারা বুনতে থাকে জাল।
রাত বাড়ে, আমি ঘষে দিই শেষ সিগারেট।
আর আমার একলাবাস কাটতে থাকে এভাবে,
একটু স্পর্শের আশায়।